অবস্থান – শিমুল মুস্তাফা

এখন আমার ভীষণ খরা।
এখন আমার ভীষণ খরা
হাতের মুঠোয় লক্ষ তারা
একটি তারাও যায়না ধরা
কেউ বলে না, কেউ টলে না
কেমন আছ? কোথায় আছ?
কোন পাতাতে ফুল গুঁজেছ
কেউ বলে না, কেউ বলে না।

কোন বারুদে অগ্নি বেশি, কোন ফাগুনে ফুল
কোন কথাটা শুদ্ধ বেশি, কোন কথাটা ভুল
কেউ বলে না, কেউ বলে না।

কোন পাখিটা দুঃখী ভীষণ, কোন পাখিটা সুখী
কোন আঁখিটা সুখী ভীষণ, কোন নদীটা দুঃখী
কেউ বলে না, কেউ বলে না।

বুকের কাছে আলতো এসে
লাজুক চোখে ভালোবেসে
একটি বারও কেউ বলে না
যেমন ছিলে তেমন থেকো
তেমন থেকো যেমন ছিলে
তোমার জীবন সুখের হবে
কেউ বলে না, কেউ চলে না
কেউ বলে না।

এখন আমায় কেউ বলে না!
অষ্ট প্রহর কেমন থাক?
স্বপন মাঝে কোথায় থাক?
কোন তারাটা নিশিত রাতে
আমার জাগার সাক্ষী থাকে?
কেউ জানে না, কেউ জানে না।

কেউ জানে না, কেউ বোঝে না
কেউ বোঝে না, কেউ খোঁজে না
কোন পুকুরের পদ্ম গুলো
ভোর না হতে নিখোঁজ হতো
কোন বাগানের বোধ গুলো সব
সারা দুপুর রোদ পোহাত
একটি যুগল আসবে বলে
সারা দুপুর সন্ধ্যা হলো
কেউ এলো না, কেউ এলো না
কেউ এলো না।

Be the first to reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *