বস যখন গার্লফ্রেন্ড – পার্ট( ১ ) | Boss Jokhon Girlfriend – Part( 1 )

Boss-Jokhon-Girlfriend-Part-1
image_pdf

– ম্যাম আমিতো আপনার বডিগার্ড না।(আমি)
– আমি যা বলছি তাই হবে ওকে। সো কথা বাড়াবেন না।(ম্যাম)
– আচ্ছা ঠিক আছে ম্যাম। আমি আসি তাহলে।(আমি)
– আচ্ছা যান।(ম্যাম)

ধুরর কি মুশকিলে পড়লাম আগে তো অফিসের কাজ করতে করতে দিন চলে যেতো আর এখন একটা মেয়ের পিছনে পিছনে ঘুরতে হবে।
যাই হোক কাজ থেকে বেচে তো গেলাম।কিন্তু একটা মেয়ের সাথে সারাক্ষণ থাকাটা যে কতটা অস্বস্তিকর তা কেউ না থাকলে বুঝতে পারবে না।

যাই হোক সেদিনের মতো কাজ শেষ করে বাসায় আসলাম।
বাসা মানে নিজে একা থাকি। বাবা মা গ্রামে থাকে।
কিছুদিন হলো চাকরি পেয়েছি তাই আনা হয়নাই বাবা মা কে।
ভাবতাছি আর কিছুদিন পর নিয়ে আসবো তাদের।

শুনেছি ম্যাম দেখতে খুবই সুন্দর। আমি তাকাই নাই তার দিকে কারন সুন্দরি মেয়েদের চোখে অনেক মায়া একবার মায়ায় পড়ে গেলে বেরুনো অনেক কঠিন।
যেমনটা পড়েছিলাম কলেজ লাইফ এ। আজো সেই মায়া কাটাতে পারি নাই।

ওহ পরিচয় ই তো দেই নাই
আমি সানভি আহমেদ সাকিব। পড়ালেখা শেষ করে একটা কোম্পানিতে চাকরি করতাছি। বেতন ভালো তাই। সরকারি চাকরির কথা আর নাই বললাম।

যাই হোক আমি একা মানুষ রান্না নিজেকেই করতে হয়।
কিন্তু আজকে ইচ্ছা করতাছে না রাধতে। যদি কেউ এসে রান্না করে দিয়ে যেতো তাহলে অনেক ভালো হতো।
ঠিক তখনি বিয়ের কথা মনে পড়লো। এখন একটা বউ থাকলে কতো সুবিধাই না হতো।
কিন্তু কি করবো একজনকে কথা দিয়েছিলাম তাকে ছাড়া আর কাউকে বিয়ে করবো না। কি বুঝতে পারছেন নাতো।পুরোটা পড়েন বুঝতে পারবেন।

অনেকদিন পর আবার তাকে দেখতে ইচ্ছে হলো।কিন্তু উপায় নাই হয়তো এতোদিনে তার বিয়ে হয়ে গেছে।

পরের দিন অফিসে গেলাম।
গিয়েই ম্যাম এর রুমে গেলাম কারন আজ থেকে আমার কাজ ওখানেই।
আমি গিয়ে তাকে সমস্ত কাজ বুঝিয়ে দিলাম।
কাজ শেষ করতে করতে অফিস টাইম শেষ।
আমি এখনো দেখি নাই তাকে। তাকাই নাই এখনো
তবে খেয়াল করি তিনি আমাকে দেখেন।

– আচ্ছা শুনো?(ম্যাম)
– জি ম্যাম বলেন?(আমি)
– আমি তুমি করে বললে রাগ করবা নাতো?(ম্যাম)
– না আপনি আমার ম্যাম আপনি তুই করে বললেও আমি রাগ করতে পারি না।(আমি)
– আচ্ছা তোমার নাম্বারটা দাও তো।(ম্যাম)
– নাম্বার দিয়ে কি করবেন??(আমি)
– কোনো কিছুর দরকার হলে ফোন দিবো।(ম্যাম)
– ম্যাম কিছু মনে করবেন না আপনার বাবা অনেক ভালো কাজ জানেন কিছুর দরকার হলে তার কাছে থেকে জেনে নিবেন?(আমি)
– আমি নাম্বার দিতে বলছি নাম্বার দিবা এতো কথা বলো কেনো তুমি?(ম্যাম)
– আচ্ছা ম্যাম লিখেন…017985182**…(আমি)
– আচ্ছা ঠিক আছে এবার যেতে পারেন।(ম্যাম)
– ঠিক আছে ম্যাম(আমি)
তারপর বাসায় চলে আসলাম।
অনেকদিন পর আজকে একটা মেয়ের এরকম রাগি কন্ঠ শুনলাম।লাস্ট শুনেছিলাম ৪ বছর আগে।
হয়তো তুমি ভুলে গেছো কিন্তু আমি ভুলি নাই এখনো।

যাই হোক এসব কথা বাদ দেই
রাতে রান্না করে খেয়ে ঘুমিয়ে গেলাম।
ঘুম ভাংতে ভাংতে বেলা ১০ টা বেজে গেছে আজকে এলার্ম
দেই নাই কারন আজকে শুক্রবার অফিস বন্ধ তাই আরকি ।
ঘুম থেকে উঠে ফ্রেস হয়ে একটু আড্ডা দিতে গেলাম।
নতুন কিছু বন্ধু আছে এখানে।অনেকদিন যাওয়া হয়না অনেকদিন মানে সাতদিন। প্রতি শুক্রবার সবাই একসাথে হই।
সারা সপ্তাহ তোা কাজেই চলে যায়।
বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতাছি ঠিক তখনি একটা অচেনা নাম্বার থেকে ফোন আসলো
– আসসালামু আলাইকুম। কে বলছেন??(আমি)
– নিলিমা?(ওপাশ থেকে)
নিলিমা নামটা শুনতেই ভিতরটা কেমন যেনো করে উঠলো।
– কোন নিলিমা?(আমি)
– তোমার অফিসের বস আমি?(নিলিমা)
– ওহ ম্যাম আপনি?(আমি)
– হুমম। নাম্বারটা সেভ করে রাখেন?(নিলিমা)
– আচ্ছা ম্যাম?(আমি)
– আজকে বিকেলে একটু দেখা করতে পারবেন।(নিলিমা)
– ম্যাম আজকে তো ছুটির দিন?(আমি)
– আসতে বলছি আসবা বেশি কথা বলবা না তোমার চাকরি তাহলে চলে যাবে।(ম্যাম)
– না ম্যাম আসবো আমি ঠিকানা দেন কোথায় আসতে হবে।(আমি)
তারপর ঠিকানা নিয়ে বাসায় চলে আসলাম।
বিকেলে দেখা করতে গেলাম।
কিন্তু জায়গাটা খুবই নিরব আশে পাশে কোনো শব্দ নাই।
শহরের কোলাহল এর মাঝেও এরকম একটা যায়গা আছে জানতাম না।
কিছুটা এগুতেই দেখতে পেলাম ম্যামকে।
অন্যদিকে মুখ করে তাকিয়ে আছে।
নিলিমা নাম ম্যাম এর তাই দেখতে ইচ্ছা হলো
আমি এই প্রথম বার তার মুখের দিকে তাকালাম
– ম্যাম কি জন্য ডেকেছিলেন?(আমি)
ম্যাম আমার দিকে ঘুরতেই বড়ো ধরনের একটা শক খেলাম।
এটা তো সেই নিলিমা যাকে কলেজ লাইফে ভালোবাসছিলাম কিন্ত আফসোস সে না বুঝেই চলে গেছিলো।
আমি নিলিমার দিকে একদৃষ্টিতে তাকিয়ে আছি।
একটুও বদলায় নি সে একদম আগের মতোই আছে।
চলবে … …… ..

বস যখন গার্লফ্রেন্ড | Boss Jokhon Girlfriend

বস যখন গার্লফ্রেন্ড – পার্ট( ২ ) | Boss Jokhon Girlfriend – Part( 2 )
বস যখন গার্লফ্রেন্ড – পার্ট( ৩ ) | Boss Jokhon Girlfriend – Part( 3 )

Please Rate This Post
[Total: 13 Average: 3.4]

You may also like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *