Senior Love

Senior Love – Love Story Bangla

Posted by

Senior Love:

তাহলে আজ আমরা Senior Love গুলো কেমন হয় তা পড়তে যাচ্ছি ।

ওই তোকে না স্মার্ট হয়ে কলেজে
আসতে বলেছি,,,চুল গুলাওতো
ঠিক মতো আচড়িয়ে আসিস নি,,,
এই দিকে আয় চুল গুলো আচড়িয়ে
দেই,,
দিশা আপু আমার চুলগুলো আচড়িয়ে
দিতে লাগলো,,
আমিঃভালোবাসো আমায়,,
দিশা আচড়ানো থামিয়ে দিয়ে বললো,,
না বাসি না,,
দিশা আবার আমার চুল ঠিক
করতে লাগলো,,
আমিঃভালো যদি না ই বাসো তাহলে
এত কেয়ার করো কেনো,,
দিশাঃতোকে অগোছালো দেখতে
ভালো লাগে না,,,
আমিঃও,
দিশাঃস্মার্ট হয়ে চলবি,,
দিশা চলে গেলো,,

…….. Senior Love – Love Story Bangla ……….

আসলে দিশা আপু আমার এক ইয়ার বড়,,
মেয়েটাকে সেই কবে থেকে
ভালোবাসি,,, বলেওছি কতবার,,,
কিন্তু কোনো সাড়াপেলাম না,,
পাশাপাশি বাসা হওয়াতে ও প্রায়
আমাদের বাসায় আসে,,,
তখন থেকেই ওকে পছন্দ করি,,
ওকে যতবার বলেছি ও ততবার
হ্যাও বলেনি নাও বলেনি,,,তাই
আমিও পিছু ছাড়িনি,,, এখনো
ভালোবেসে যাচ্ছি,,,
ও আমাকে ভালো না বাসলেও
আমাকে খুব কেয়ার করে,,,
এটা কি ভালোবাসা থেকে নাকি
বাসার পাশে থাকি বলে স্নেহ করে
ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না,,,
আমার সবচেয়ে খারাপ লাগে তখন
, যখন দেখি দিশা তার ফ্রেন্ডদের সাথে
হাসাহাসি করে,, কথা বলে,,,,

…….. Senior Love – Love Story Bangla ……….

যাক বিকালে বাসায় শুয়ে আছি
তখন দিশা বাসায় আসলো,,,
দিশাঃএই ছেলে চলতো,,এই
অবেলায় শুয়ে আছিস কেনো,,
আমিঃকোথায়,,
দিশাঃএকটু মার্কেটে যেতে হবে,,,
আমিঃআচ্ছা চলো,,
.
দুজন রিক্সায় বসে যাচ্ছি,,,
দিশার গায়ের সাথে গা বাজছে,,
ওর প্রতিটা ছোয়া আমি হৃদয়
দিয়ে উপলব্ধি করছি,,
.
দিশা কিছু কেনাকাটা করলো,,,
আমার হঠাৎ ই একটা নুপুরের
দিকে চোখে পড়লো,,
বেশ পছন্দ হয়েছে তাই দিশার
জন্য নিয়ে নিলাম,,.
.
মার্কেট থেকে বের হয়ে যখন দিশা
রিক্সায় উঠবে,,তখন আমি বললাম,,
দিশা তোমার পা টা একটু দেখি,,
দিশাঃকেনো,,
আমিঃদেখিনা,, একটু এগিয়ে দাও,,
দিশাঃকেন আগে বল,,,?
আমিঃএকটা নুপুর কিনেছি তোমার
জন্য,,দেখি পা টা দেও,
দিশাঃআমার এসব পরতে ভালো
লাগে না,,,দেখি হাতটা বাড়া তো,,
কেনো,,
আমি মনে মনে ভাবলাম হয়তো
আমার হাতে ঘড়ি পড়িয়ে দিবে,,
দিশাঃতোর শার্টের হাতা কি করে
রেখেছিস দেখছোছ,,,
দিশা আমার শার্টের হাতা ঠিক করে
দিলো,,
.
তারপর রিক্সা নিয়ে বাসায় চলে
আসলাম,,
.
কলেজে কিছু বন্ধুদের সাথে আড্ডা
দিচ্ছি,,, তখন দিশা ডেকে বলল
,ওই তোকে না বলছি বেসি আড্ডা
দিবি না,,যা ক্লাশে যা,,,
এই কথা বলে দিশা চলে যেতে লাগলো,,
আমি ওর হাত টান দিয়ে আমার বুকে
এনে ফেললাম,,
আমিঃখুব ভালোবাসি তোমায়,,
প্লিজ একবার হ্যা বলো,,
দিশাঃ এসব কি,, প্রেম করার
অনেক সময় পাবি,, এখন ছাড় আমায়,,

.
দিশা আমার কাছ থেকে নিজেকে
ছাড়িয়ে নিয়ে চলে গেলো,,
.
আজকাল দিশা কে নিয়ে বেসি
ভাবাভাবি হচ্ছে,, তাই দিশা কে ছাড়া
কেমন নিজেকে নিঃসঙ্গ লাগে,,
খেতেও ভালো লাগে না,,,
.
পরদিন আমি মামার বাসায় গেলাম,,
.
ফেরার পথে ভাবলাম রেস্টুরেন্টে
খাওয়া হয় না কত দিন,,, কিছু খেয়েই যাই,,
.
ভেতরে ঢুকে যে এত বড় একটা
চমক দেখবো তা কখনো ভাবিনি,,,
বেশ হৃদয় বিদারক একটা সিন আমার জন্য,,
.
ভিতরে গিয়ে দেখি দিশা আর একটা
ছেলে বসে আছে,,
কত সুন্দর করে দুজন কথা বলছে
আর খাচ্ছে,,
আর সবচেয়ে কষ্টের দৃশ্য হল
মাঝখানে ফুলের
তোড়াটা দেখে,,,
খুব যেনো কান্না আসছে,,
আর কিছু ক্ষন থাকলে হয়তো
কেদে দেবো,,
তাই চলে আসলাম,,,
.
মনটা কিছুইতেই বুঝতে চাচ্ছে না,,
মনকে বুঝাতে লাগলাম,,আমার
পাখি আর আমার নাই রে,,সে অন্যের,,
.
চোখদিয়ে পানিটা বের হয়েই গেলো,,
.
বাসায় এসে রুমে ঢুকলাম আর
বের হলাম না,,
খেতেও কেন জানি ইচ্ছা করছে না,,,,
.
পরদিন কলেজে গেলাম,,
একা বসে আছি,, আকাশপানে
তাকিয়ে থাকলাম,,,
ভালোই লাগে তাকাতে,,,
.
কিরে ক্লাশ রেখে এখনে কি করস,,,
তাকিয়ে দেখি দিশা,,
দিশাঃকিরে তোর চোখ এমন লাল
কেনো,, রাতে কি ঘুমাসনি, ,
আমিঃনা,
দিশাঃকেনো,,
আমিঃএমনিতেই,,,
দিশাঃআচ্ছা চল ক্লাশে যাই,,,
আমিঃতুমি যাও,,আমার ভালোলাগছে না,,
দিশাঃকেনো রে,,,চলতো,,
আমিঃতুমি ক্লাশ যাও না, আমি
পরে আসছি,,
.
দিশা কিছুক্ষন আমার দিকে তাকিয়ে
ক্লাশে চলে গেলো,,
.
আজকাল বাসায় থাকতেও ভালোলাগছে
না,, তাই নদীর পারে গিয়ে বসে থাকি,,
নদির ঢেউএর খেলা দেখে নিজেকে
কিছুটা ভুলিয়ে ভালিয়ে রাখি,,কষ্টকে বরণ করার চেষ্টা করি।।
.
কলেজেও ঠিক মতো যাওয়া হয়না,,,
.
বিকালে বাসা থেকে বের হতেই দেখি
দিশা আসছে এদিকে,,
আমাকে দেখে দাড় করালো,,
.
দিশাঃকিরে তোর তো আজকাল
কোনো পাওাই পাওয়া যাচ্ছে না
,,বাসায় পাইনা ঠিকমতো,,
কি হয়েছে তোর,,
আমিঃকিছুনা,,
দিশাঃচল তোকে নিয়ে ঘুরতে যাবো,,
আমিঃআমি আম্মুর ঔষধ আনতে
যাচ্ছি,,, পরে ঘুরতে যাবো,.
সেখান থেকে চলে আসলাম
আম্মুর ঔষধ আনতে,,,
.
আজ ও নদীর পারে বসে আছি,,নির্মল
বাতাসে তখন পাস থেকে
কেউ বললো,
.
তুমি জীবন না,,
পাশে তাকিয়ে দেখি একটা মেয়ে,,

…….. Senior Love – Love Story Bangla ……….
.
মেয়েঃতুমি জীবনতো,,,
আমিঃহুম,,,কেনো,,
মেয়েঃতুমি আর আমি তো একই
কলেজে পড়ি,,,
আমিঃতোমাকে তো আগে কখনো
দেখিনি,,
মেয়েঃএইতো কিছুদিন হলো,,ট্যান্সফার
হোয়ে এখানে ভর্তি হয়েছি,,বায়দা
ওয়ে আমি রিয়া,,
আমিঃযুবায়ের আহম্মেদ জীবন,,
রিয়াঃতো কি করো এখানে,,
আমিঃএইতো নদী দেখছি,,তুমি
কি করো এখানে,
রিয়াঃআমিও দেখতে এসেছি,
,প্রায় আসি,,
আমিঃও,,
রিয়াঃআচ্ছা আমরা তো ক্লাসমেট,,
আমিঃহুম,,
রিয়াাঃআমরা কি ফ্রেন্ড হোতে পারি,,
আমিঃ হ্যা তা অবশ্যই,,
রিয়াঃতাহলে আজ থেকে
আমরা ফ্রেন্ড,,
আমিঃহুম,,
রিয়াঃপ্রতিদিন কিন্তু আমরা
একসাথে নদী দেখবো,,
আমিঃওকে,,

…….. Senior Love – Love Story Bangla ……….

ঠিকই পর দিন থেকে আমরা একসাথে
নদী দেখতাম গল্প করতাম
রিয়ার সাথে কথা বলতে খারাপ
লাগতো না,,,
.
আজও বসে আছি দুজন,
রিয়াঃতুমি কলেজে যাওনা কেনো,,
আমিঃএমনিতেই ভালো লাগে না,,
রিয়াাঃকাল কলেজে যাবে,,
আমিঃনা আরো কিছুদিন পরে যাবো,,
রিয়াঃনা কাল যেনো কলেজে
পাই,,,না হলে খবর আছে,,
.
পরের দিন ঠিকই কলেজে গেলাম,,
.
বসে আছি তখন রিয়া পাশে
বসতে বসতে বললো,,তাহলে
কলেজে আসলে,,
আমিঃহুম,,,
.
জীবন জীবন ,এই জীবন এদিকে আয়,,
কারো ডাক শুনে সামনে তাকালাম,,
তাকিয়ে দেখি দিশা,,
.
দিশাঃওই তোকে কি বলি কানে যায়
না,, এদিকে আয়,,

Senior Love
.
আমি কাছে গেলাম,,
দিশাঃওই তোরে না বলছি মেয়েদের
ধারের কাছে যাবি না,,
.
আমি রিয়াকে ডাক দিলাম,,
আমিঃও রিয়া এ দিকে
আসো তো,,
রিয়া কাছে আসলো,,
আমিঃরিয়া এ হলো দিশা আপু,
আমাদের এক ইয়ার সিনিয়র,,আর
দিশা আপু এহলো আমার নতুন ফ্রেন্ড
রিয়া,,
রিয়াঃহায় আপু,,
দিশাঃহ্যালো,,
রিয়াঃআপু জীবন আপনার ভাই
হয় নাকি,,
দিশা কিছুটা রেগে বললো,,,ভাই হতে
যাবে কেনো,,
রিয়াঃও,আমি মনে করলাম
সেরকমই কিছু,,আচ্ছা আসি আপু
, ভালো থাকবেন,, এই জীবন চল,,
আজ বাদাম খেতে খেতে নদী দেখবো,,
.
রিয়া আমাকে দিশার সামনে
দিয়ে টেনে নিয়ে গেলো,,
দিশা শুধু আমার চোখের দিকে
তাকিয়ে থাকলো,,,
.
বিকালে বাসায় ঢুকতেই দেখি দিশা
আমাদের বাসায়,,,
.
আমি রুমে ঢুকে গেলাম,,
কিছুক্ষন পর দিশাও আমার রুমে ঢুকলো,,
আমিঃআরে আপু তুমি,,
দিশাঃওই তুই আমাকে বাসায় ঢুকার
সময় দেখিস নি,,,
আমিঃখেয়াল করিনি,,কিছু বলবে,,
দিশাঃতোকে কাল হতে কোনো
মেয়ের সাথে যেনো না দেখি,
আমিঃআর কিছু,,
দিশাঃআর কিছু কি হ্যা,, মেয়েদের সাথে
তোর এত লটর পটর কেনো,,
আগে নিজের লাইফটা স্যাটেল
কর তারপর এসব করবি,,
আমিঃআর কিছু বলবে,,ওয়াশ রুমে
যাবো,,,
দিশাঃনাহ,,,
.
আমি ওয়াশ রুমে ঢুকে গেলাম,,,দিশা
চোলে গেলো,,
.
পরদিন আবার আমাকে আর
রিয়াকে এক সাথে দেখে
দিশা আমাকে ডাক দিলো,,
.
আমিঃকিছু বলবে,,
দিশাঃতুই আবার ওর সাথে আড্ডা
দিচ্ছিস,,,কাল তোকে কি বললাম,,
আমিঃ??
দেখি হাতটা দে,,হাতাটাও ঠিক
করে আসতে পারিস না,,
.
দিশা আমার হাতা ঠিক করতে লাগলো,,
আমি হাত সরিয়ে নিয়ে বললাম,,
এত আলগা পিরিত দেখাতে
হবে না,,নিজে ছেলেদের সাথে হাটতে
পারবে ঘুরতে পারবে আর আমি
পারবো না,,
দিশাঃতুই আমার মুখের উপর কথা বলতে
পারলি,,
আমিঃযা সত্য তাই বললাম,,ভালো যখন
বাসোই না তখন এত কেয়ার করার
মানে
কি,, আমার নিজের তো একটা মন
আছে,, তুমি তোমার বিএফ নিয়ে রেষ্টুরেন্টে
খেতে যাও কই আমি তো কিছু বলিনা,,
দিশার মুখটা মুহুর্তেই লাল হয়ে গেলো,,
দিশাঃখুব চেন্জ হয়ে গেছিস রে তুই,,
আর রেষ্টুরেন্টে যাকে দেখেছিস সেটা
আমার বিএফ না,,আমার কোনো
বিএফ নেই,,,আর কিছু বলবো না,, ভালো
থাকিস,
দিশা আর কিছু না বলে সামনে থেকে
হনহন করে চলে গেলো,,
.
পরের দুদিন আর দিশার কোনো খোজ
পেলাম না,, যদি ও পাসশ বাসা,,
.
রাত তখন নয়টা কি দশটা হবে,,
মা দিশাদের বাসা থেকে এসে আমায়
বললো,,বুঝলি জীবন,,পাশের বাসার
দিশা আছে না,,
আমিঃহ্যা,
আম্মুঃকার সাথে যেনো জিদ করে দুদিন
যাবত কিচ্ছু খাচ্ছে না,,একটু আগে মাথা ঘুরিয়ে
পড়ে গেছে,,পরে তেলপানি দিয়ে মেয়েটার
জ্ঞান ফিরালাম,,
আমি এত করে সাধলাম কিছুতেই
খেলো না,,
আমি মনে মনে ভাবলাম একবার
সরি বলে আসি,,
.

দিশাদের বাসায় ঢুকতেই দেখলাম
আন্টি কি রকম চিন্তিত,,
আমিঃকি হয়েছে আন্টি,,
আন্টিঃমেয়েটাকে নিয়ে আর পারিনা,
, কারসাথে কি হোয়েছে,,তাই এখন দুদিন
ধরে না খেয়ে বসে আছে,,
আমিঃআপনি ভাত নিয়ে আসেন,
আমি রুমে গেলাম,,
.
দিশার রুমে ঢুকে দেখি দিশা শুয়ে
শুয়ে জানালার দিকে তাকিয়ে আছে,
আমি পাশে গিয়ে বসলাম,,
আমাকে দেখে দিশা উঠে বসলো,আর
অন্যদিকে মুখ ঘুরিয়ে নিলো,,
আমিঃসরি,, আমি আসলে সেদিন
তোমার সাথে খারাপ ব্যাবহার
করে ফেলেছি,,আর না খেয়ে আছো
কেনো,, নিজের চেহারার কি অবস্থা
করেছ আয়নায় একবার দেখেছ,,,,
.
আন্টি খাবার নিয়ে আসলো,,
আমিঃদেখি হা করো,,
দিশাঃকারো বলার সময় মনেছিলো না,
এখন আসছে ভাত খাওয়াতে,,খাবো
না আমি,,
আমিঃনা খেলে নিজে অসুস্থ হয়ে
যাবে, ফেস খারাপ হয়ে! যাবে,,
ছেলেরা পছন্দ করবে না,,,,
দিশাঃএখন আর কেউ পছন্দ করে না
, ফেস খারাপ হলে হোক,,আর আমি
অসুস্থ হলে তোর কি কুওা,,
আমিঃবুঝেছি এভাবে হবে না,, আন্টি
আপনি বাহিরে যানতো,,

Our youtube channel

আন্টি বাহিরে যেতেই দিশার মাথাটা
দুহাত দিয়ে টেনে দরে ওর ঠোটের সাথে
ঠোট মিশিয়ে দিলাম,,,
কয়েকটা কিল থাপ্পর দিলো ছাড়ানোর
জন্য, তারপর অশান্ত মেয়েটা মুহুর্তেই
শান্ত হোয়ে গেলো,,
খুব করে ওর ঠোটের সাধ নিতে থাকলাম,,
দিশা আমার শার্টটা খামছে দরলো,,
বেস কিছুক্ষন পর ছেড়ে দিলাম,,
.
দিশা আমার মুখের দিকে হা করে
তাকিয়ে আছে,,দিশা কিরকম চুপসে গিয়েছে,,

…….. Senior Love – Love Story Bangla ……….

আমি ওর মুখের সামনে ভাত ধরতেই
ছোট করে হা করলো,,
ভাত সব গুলো খাইয়ে দিলাম,,
দিশা পুরোটা সময় আমার মুখের দিকে
তাকিয়ে থাকলো,,
ওর মুখ মুছে দিয়ে যেই চলে আসতে
যাবো,,তখন পিছন থেকে দিশা আমার
হাত টেনে দরলো,,

দিশাঃনুপুরটা পরিয়ে দেব,,
আমিতো শুনে খুশিতে আত্তহারা
হয়ে গেলাম,,
দিশা পা টা এগিয়ে দিয়ে বললো,,নুপুরটা
পরিয়ে দে
আমিঃআপনি তো নুপুর পরতে পছন্দ
করেন না,,তাই সেটা রিয়াকেপরিয়ে দিয়েছি,

 

দিশা মুহুর্তেই রেগে গিয়ে আমায় মারতে
মারতে বললো,,কি বললি কুওা, তুই
নুপুর কাকে পরিয়েছিস,,ওই শাকচুন্নিটাকে
,,তুই আমার নুপুর দে,,আজ
তোকে মেরে ফেলবো,,
দিশা আমায় খাটে ফেলে মারছে,
আমি মাইরের হাত থেকে বাচতে দিশা
কে বুকে জড়িয়ে দরলাম,,

আর দিশা মাইর দেওয়া বন্ধ করে কেদে দিলো,,
বুকের ভিতর মুখ গুজে কাদতে কাদতে
বললো,,তুই কেনো বুঝিস না,, তোকে
এত কেয়ার কেনো করি,, সেই কবে থেকে
তোকে আগলিয়ে রেখেছি আমি,
আর তুই ওই সাকচুন্নিটাকে, আর
বলতে পারলো না,,কেদে দিলো,,
দিশাঃআমি কিছু জানি না,, তুই আমার
নুপুর দিবি,,ওই পেত্নিটার পা কেটে নুপুর
আনবো,,
আমিঃপাগলি,বুকের ভিতর তোমার
জায়গা কেউ কখনো দখল করতে
পারবে না,, নুপুর পকেটে আছে,,
দিশাঃপরিয়ে দেও,,
আমি দিশাকে নুপুরটা পরিয়ে দিলাম,,,
দিশা আবার আমাকে জড়িয়ে ধরলো,,
মধুময় রাতটা দুজন দুজনাকে জড়িয়ে
ছাদে কাটিয়ে দিলাম,,,
…….. Senior Love – Love Story Bangla ……….


Our more story: True Love

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *