image_pdf

ইচ্ছাপূরণ

নীল রঙের নোনা ধরা দেওয়ালে হলদে হয়ে যাওয়া টিউব বাতির নীচে টানানো ঘড়িতে বাজে বারোটা চল্লিশ। রাত বারোটা চল্লিশ। না, এবার একটু বিশ্রাম নিতে হবে। কাল খবরের কাগজের অফিসে ইন্টার্ভিউ। […]

Please Rate This Post
[Total: 4 Average: 2.5]
Continue Reading

হ্যাপি ভ্যালেন্টাইন ডে

Valentine sms

তোমাকে ভেবে পৃথিবী আমার অদেখা তবু এঁকে যাই,
আমার ভেতর শুধু তুমি আর তো কিছু পায়নি ঠাই ।
**** হ্যাপি ভ্যালেন্টাইন ডে **** […]

Please Rate This Post
[Total: 7 Average: 3.3]
Continue Reading

পালিয়ে যাওয়া মেয়ের প্রতি বাবার চিঠি

পালিয়ে যাওয়া মেয়ের প্রতি বাবার চিঠিঃ
মা’রে,
শুরুটা কিভাবে করবো বুজে উঠতে পারছিলাম না।
যেদিন তুই তোর মায়ের অস্তিত্ব ছেড়ে ভূমিষ্ঠ হয়েছিলি সেদিন থেকে তোকে মা বলে ডাকতে শুরু করলাম। তোকে মা ডাকতে গিয়ে নিজের মা হারানোর ব্যাথা ভুলেই গিয়েছিলাম। তোর মাকেও কোনদিন মা ছাড়া অন্য নামে ডাকেতে শুনিনি। বিদ্যালয়ে প্রথম দিন শিক্ষক তোর নাম জিজ্ঞেস করেছিলেন। […]

Please Rate This Post
[Total: 2 Average: 2.5]
Continue Reading

অপ্রকাশিত ভালোবাসা

কোন এক বসন্তের প্রাণবন্ত সকাল। অনির্দিষ্টের মতো ছেলেটা একটা শপিং কমপ্লেক্সের ভিতর এদিক-সেদিক ঘোরাঘুরি করতে থাকে। একসময় তার চোখ পড়ে যায় একটা CD-স্টোরের কাউন্টারে দাঁড়ানো খুব সুন্দর একটা মেয়ের দিকে। মেয়ের হাসিটা ছিল অপূর্ব রকমের সুন্দর , ছেলেটা প্রথম দেখায় মেয়েটার প্রেমে পড়ে যায়। এটাই মনে হয়, Love At First Sight. […]

Please Rate This Post
[Total: 20 Average: 3.7]
Continue Reading

dui bondhu – দুই বন্ধ

প্রায় বারো বছর হয়ে গেল, ভুতো আর রনির মধ্যে কোন যোগাযোগ নেই। ভুতো কেমন আছে , কোথায় আছে , বিয়ে-থা করেছে কিনা … কোন তথ্যই জানা নেই রনির।  আশ্চর্যের ব্যাপার হল, ভুতোর কথা আর মনেই পরে না ওর। আজ অনেক বছর বাদে পুরণ স্কুলের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় হঠাৎই মনে পরল ভুতো কে। ছিপ ছিপে লম্বা, শ্যামলা গড়ন, বড়বড় ঝাঁকড়া ছুল- চোখ বন্ধ করলে এখনও স্পষ্ট ভাসে ছেলেটার চেহারা। […]

Please Rate This Post
[Total: 3 Average: 2.3]
Continue Reading

ছোট গল্প: আত্মগোপন

তৃষ্ণা বসাক গল্প ছাড়াও লিখে থাকেন কবিতা, উপন্যাস, প্রবন্ধ এবং ছোটদের জন্য কল্পবিজ্ঞানের গল্প। তাঁর টুপিতে রয়েছে মৈথিলি থেকে বাংলায় অনুবাদের ক্রিয়াশীলতাও। একাধিক পুরস্কারে ভূষিত তৃষ্ণার গল্প আজ।

এই শহরে আগে আসেনি সুনীল। সুনীল চন্দ্রোথ। বরাবর কোচিতে থাকে। আজন্ম। কিন্তু এ শহরের সঙ্গে ওর একটা গভীর যোগ আছে। ওর বাবা একবার এখানে এখানে আত্মগোপন করে ছিলেন। মিস্টার কেশবনের বাড়িতে, ভবানীপুরে রূপচাঁদ মিত্র লেন। এইটুকু সম্বল করে সুনীল যখন নেতাজী সুভাষ এয়ারপোর্টে নামল তখনো ভালো করে বিকেল হয়নি। ১০. ৪৫- এ কোচি থেকে ছেড়ে মোটের ওপর ঠিকঠাক এসেছে বলা যায়। লাগেজ টাগেজ কালেক্ট করে মালিনীকে একটা ফোন করল সুনীল। ফোনটা বেজে গেল। হয়তো মিটিং -এ আছে। সে একটা এস. এম. এস. করে দিল ‘রিচড কলকাতা  সেফলি’।  মালিনী বেশিরভাগ সময় মোবাইল ডেটা অফ করে রাখে, তাই হোয়াটসঅ্যাপ করলে  নাও দেখতে পারে। মেসেজটা পাঠানর পর একটা কফি নিয়ে ধীরেসুস্থে চুমুক দিল । চারটে এখনও বাজেনি। ওর হাতে অনেক সময়। সুজাতা ছটার আগে আসবে না।  ওর স্কুল ছুটি হয় সোয়া পাঁচটা, সেখান থেকে একটা অটোতে ও চলে আসবে অ্যাক্রোপলিস মলে, সেখান থেকে ও সুনীলকে নিয়ে যাবে একটা গেস্ট হাউসে। সুনীল জিগ্যেস করেছিল, ‘সোজাই তো গেস্ট হাউস চলে যেতে পারি আমরা। আবার মল  কেন?’ আসলে এসব মল-টল তার একটুও ভালো লাগে না। তার ভালো লাগে ছোট ছোট দোকান, জীবন্ত মুখ চোখের দোকানী, যারা রাতের দিকে দোকান ফাঁকা থাকলে জীবনের সব কাহিনি উজাড় করে দেয়। ছাপাখানার মালিক কেশবনের এরকম কাহিনি ছিল? কে জানে? […]

Please Rate This Post
[Total: 1 Average: 3]
Continue Reading

ছোট গল্প: গন্ধ

পেশায় ডাক্তার চন্দন ঘোষের নিবাস উত্তর ২৪ পরগনার বারাসাতে। ইতিমধ্যেই তিনটি পুস্তক প্রকাশিত হয়েছে তাঁর, প্রকাশ পেতে চলেছে আরও দুটি। আজ চন্দনের গল্প।

গন্ধটা তাড়া করে বেড়াচ্ছে অঞ্জনকে। আর তাড়া করে বেড়াচ্ছে ছোট উজ্বল সুন্দর দুটো চোখ।  কোথাও স্বস্তিতে দুদন্ড বসতে দিচ্ছে না। পাশের ঘরটার বন্ধ দরজার দিকে তাকালেই কেমন যেন একটা ভয় চেপে বসছে ওকে। দরজা খুললেই ঝাঁপ দিয়ে ঢুকে পড়বে সেই তীব্র গন্ধটা। উগ্র, পচা, নরক থেকে উঠে আসা সেই গন্ধ যেন অঞ্জনের আত্মাকে পর্যন্ত নোংরা করে দিচ্ছে। কিন্তু কোথা থেকে আসছে ওই গন্ধটা? সব তো তন্নতন্ন করে খোঁজা হল! […]

Please Rate This Post
[Total: 3 Average: 3.7]
Continue Reading

ছোট গল্প: ইমোজি

বিজ্ঞানের ছাত্রী স্বপ্না মিত্র প্রবাসী বাঙালি। রেডিও ফিজিক্স ও টেলিকমিউনিকেশনস তাঁর বিষয় হলেও গদ্যচর্চা তাঁর অব্যাহত। বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় লেখালিখি করেন, এ যাবৎ প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা তিনটি। আজ স্বপ্নার গল্প।

সত্যি, একা এত পারা যায়! মেয়ের স্কুল, পরীক্ষায় গ্রেড, বাজারঘাট, সংসারের যাবতীয় হ্যাপা এই একা সুস্মিতার কাঁধে। তার মধ্যে আবার রাজারহাটের ফ্ল্যাটের ইন্টিরিয়র ডেকরেশনের কাজ শুরু করতে হল। লেক-রোডে তাদের এই ফ্ল্যাটের লিজ দু-মাস পরই শেষ হয়ে যাচ্ছে। রাজারহাট থেকে যাতায়াত একটা সমস্যা, তবু অমিত আর সুস্মিতা ঠিক করেছে লিজ শেষ হলে তারা রাজারহাটের ফ্ল্যাটেই শিফট করে যাবে। লেক-রোডের এই ফ্ল্যাটটা জমজমাট জায়গায়  বটে, তবে এরিয়া মোটে বারোশো-স্কোয়ার-ফিট, তুলনায় রাজারহাটে তাদের নিজেদের ফ্ল্যাটটা দু-হাজার-স্কোয়ার ফিটের, পূর্ব-পশ্চিম দু-দিকেই লম্বা টানা বারান্দা, লিভিং কমফর্ট অনেক বেশি। […]

Please Rate This Post
[Total: 0 Average: 0]
Continue Reading

ছোট গল্প: ক্রায়োনিকস

ভিন্ন মহাদেশ, ভিন্ন ধারায় শিক্ষা, গবেষণা ও পেশা, তবু বাংলা ভাষার প্রতি পরম প্রেম ও গল্পরচনার প্রতি তীব্র আকিঞ্চন তাঁকে জাগিয়ে রাখে সাহিত্যের সমুদ্রে। একযুগেরও বেশি সময় ধরে সারস্বতসাধনায় নিমগ্ন ইন্দ্রাণী দত্তের গল্প প্রকাশিত হল…

মনা দত্ত […]

Please Rate This Post
[Total: 1 Average: 2]
Continue Reading

ছোট গল্প: জীবন যেরকম

 ইলেক্ট্রিক সাপ্লাই কর্পোরেশনের কর্মী অরিজিৎ গুহ কলেজ জীবন থেকে লেখালিখি শুরু করেছেন। একটি ছোট সাহিত্য পত্রিকার সঙ্গেও যুক্ত রয়েছেন তিনি। সেখান থেকেই বেরিয়েছে তাঁর একমাত্র বই। আজ অরিজিতের গল্প।

উত্তর কলকাতার এক এঁদো গলির মুখে কর্পোরেশনের ঝকঝকে স্ট্রিট লাইটের আলোতে গলিটা আলোয় ঝলমলে হয়ে রয়েছে। গলির একেবারে শেষ প্রান্তে গলিটা বাঁক নিয়েছে আরেক তস্য গলির মুখে। আলো সেই অব্দি পৌঁছায় না।তস্য গলিতে বাড়ি বলতে একটাই। পুরনো দিনের একতলা একটা বাড়ি। সেই বাড়ির বাড়িওয়ালা নিজে থাকে না, একজন ভাড়াটেকে ভাড়া দিয়ে রেখেছে, কিন্তু সেই ভাড়াটে ভদ্রলোক যে কে তা কেউ জানে না।কোনো ভোটার এখানে থাকে না বলেই হয়ত কর্পোরেশনের দৃষ্টি সেই তস্য গলি অব্দি পৌঁছায়নি। […]

Please Rate This Post
[Total: 1 Average: 3]
Continue Reading

ছোট গল্প: মধুর তুমি

বাংলাভাষার লেখিকাদের মধ্যে নজর কাড়তে শুরু করেছেন নন্দিতা আচার্য চক্রবর্তী। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থে তাঁর লেখনীশক্তি প্রশংসা কুড়িয়েছে সমালোচকদেরও। এ বার তাঁর ছোট গল্প।

নন্দিতা আচার্য চক্রবর্তী  […]

Please Rate This Post
[Total: 0 Average: 0]
Continue Reading

ছোট গল্প: ছায়ামানবী

ছোট গল্প: ছায়ামানবী

দীর্ঘদিন ধরে অনুবাদের কাজে ব্যাপৃত রয়েছেন ঈশানী রায়চৌধুরী। ইংরেজি থেকে বাংলায় তিনি কর্তৃক ভাষান্তরিত কাহিনির সংখ্যা বড় কম নয়। তার সঙ্গে রয়েছে নিজের লেখালিখিও।

এই বাড়িটায় আমরা থাকি। আমরা মানে আমি, সমীরণ আর অঞ্জন। আমার নাম স্বাতী। সমীরণ আমার বর। আমাদের বিয়ের বয়স বছর তিনেক। এখনও আমাদের কোনও ছেলেমেয়ে হয়নি। অঞ্জন সমীরণের বন্ধু। ওর বিয়ে থা হয়নি যদিও, নিত্যিনতুন বান্ধবীর অভাব নেই! আর বিদেশ-বিভূঁইয়ে এ সব নিয়ে তেমন মাথাও ঘামায় না কেউ। […]

Please Rate This Post
[Total: 1 Average: 2]
Continue Reading
1 2 3 11